এবার ইসরাইলের রামন বিমানবন্দরে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালাচ্ছে ফিলিস্তিনের সশস্ত্র গুষ্টি হামাস!

0

আওয়ার টাইমস্ নিউজ।
গত কয়েকদিন ধরে দখলদার ইহুদিবাদী ইসরাইল ফিলিস্তিনের গাজায় নিরিহ ফিলিস্তিনিদের বিভিন্ন স্থাপনার উপর মুহুর্মুহু ক্ষেপণাস্ত্র ও বিমান হামলা চালিয়েছে, এসব হামলায় নারী ও শিশুসহ বহু ফিলিস্তিনি মানুষ নিহত হয়েছে। এবার তারা ফিলিস্তিনের স্থলেও আক্রমণ শুরু করেছে। কামান থেকে গাজায় ভয়াবহ গোলাবর্ষণ করছে ইসরায়েল।

গতকাল ঈদের দিনেও ইসরাইলি বাহিনী নিরিহ ফিলিস্তিনিদের উপর ভয়াবহ বোমা হামলা চালিয়ে ৩১ জন নিস্পাপ শিশুসহ ১১৩ জন ফিলিস্তিনিকে হত্যা করেছে। এই হামলায় আহত হয়েছে আরো অন্তত ৫৮০ জন।

কাতার ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আল জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, ইহুদিবাদী ইসরায়েলের হামলার পাল্টা জবাব দিচ্ছে ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সশস্ত্র যুদ্ধা গুষ্টি হামাসও। এই সংগঠনটি ইসরায়েলের আরও একটি বিমানবন্দরে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে।

এদিকে হামাসের কাসেম ব্রিগেডের মুখপাত্র আবু ওবায়দা গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, গতকাল বৃহস্পতিবার ইসরায়েলের দক্ষিণাঞ্চলীয় রামন বিমানবন্দরে মধ্যম পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র ‘আইয়াশ’-এর সাহায্যে হামলা চালিয়ে হামাস। গাজা থেকে ইসরাইলের এই বিমানবন্দরটির দূরত্ব প্রায় ২২০ কিলোমিটার।

যদিও এর আগে, হামাসের ক্ষেপণাস্ত্র হামলার জেরে ইসরায়েলের প্রধান আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর বেন গুরিওন বন্ধ করে দেয় ইসরাইল সরকার। এরপর তারা রামন বিমানবন্দর দিয়ে ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করে। গতকাল হামাস যোদ্ধারা সেখানেও রকেট হামলা চালায়।

যদিও ইসরায়েলের কর্তৃপক্ষের দাবি করছেন, হামাসের এই হামলায় রামন বিমানবন্দরের খুব একটা ক্ষয়ক্ষতি হয়নি বা কেউ হতাহতও হয়নি। তবে বিমান বন্দর কতৃপক্ষ সতর্কতাস্বরূপ কিছুক্ষণের জন্য বিমান ওঠানামা বন্ধ রাখেছিল।

এই যোদ্ধ পরিস্থিতির কারণে হামাস নেতা আবু ওবায়দা বিশ্বের সকল বিমান সংস্থাকে ইসরায়েলের সাথে সব ধরনের ফ্লাইট পরিচালনা থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন। সূত্র: জেরুজালেম পোস্ট, আল-জাজিরা।

একটি মন্তব্য লিখুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে