তুরস্ক পুনর্নির্মাণ করছে নার্গোনো-কারাবাখ চীনের সাথে সম্প্রসারিত হবে বাণিজ্য।

0

আওয়ার টাইমস্ নিউজ।
দীর্ঘ ৩০ বছর পর, স্বাধীনতা পেয়ে নাগোর্নো-কারাবাখের অবকাঠামো থেকে শুরু করে রাস্তা ও হাসপাতালগুলোতে সম্পূর্ণ রূপান্তর ঘটতে শুরু করেছে। ৬ সপ্তাহ’র তুমুল সংঘর্ষের পর, ২০২০ সালের ১০ই নভেম্বরে রাশিয়ার মধ্যস্থতায় আজারবাইজান ও আর্মেনিয়া শান্তি চুক্তি করে। ইতোমধ্যে আর্মেনিয়ার দখলমুক্ত অঞ্চল এবং আশেপাশের প্রদেশগুলোতে পুনর্নির্মাণ চলছে। আর এতে মূল ভূমিকায় রয়েছে তুরস্ক।

নাগোর্নো-কারাবাখ পুনর্নির্মাণে অর্থায়নে সহায়তা করা ইস্তাম্বুলভিত্তিক পাশা ব্যাংকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জেনেক আইনেহান বলেছেন: প্রায় ১৫ লাখ আজারি এ অঞ্চলে ফিরে আসবেন। কেননা, নির্মাণ প্রকল্পগুলো অবকাঠামো, কৃষি, শক্তি, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য খাতে পরিচালিত হবে। এ পর্যন্ত আজারবাইজান প্রকল্পগুলোতে ২২০ কোটি মানাত (১০ হাজার ৯ শ’ ১ কোটি টাকা) বাজেট বরাদ্দ করেছে এবং আগামী বছরে এতে আরো ১০ কোটি ডলার (৮শ’ ৪২ কোটি ৪০ লাখ টাকা) বরাদ্দ বাড়বে বলে আশা করা যাচ্ছে। তুর্কি ঠিকাদাররা ১০০ কিঃমিঃ বা ৬২ মাইল দীর্ঘ ফুজুলি-শুশা মোটরওয়ে এবং ফুজুলি বিমানবন্দর প্রকল্পে কাজ করবে। নাগোর্নো-কারাবাখ যুদ্ধে আজারবাইজান জয়লাভের পর, নতুন চুক্তির আওতায় অঞ্চলটির সাথে চীনের বাণিজ্য পথও আরো সক্রিয় হবে এবং বাণিজ্যও সম্প্রসারিত হবে। আমরা বিশ্বাস করি, এ অঞ্চলের সমৃদ্ধি ও ভবিষ্যতের জন্যে দুদেশের মাঝে অর্থনৈতিক ও কৌশলগত সহযোগিতা আরো জোরদার হবে।

আজারবাইজানে তুরস্কের বিনিয়োগ বর্তমানে ১২০০ কোটি ডলার (১ লাখ ১ হাজার ৮৮ কোটি টাকা)। আর তুরস্কে আজারবাইজানের বিনিয়োগ প্রায় ১৯৫০ কোটি ডলার (১ লাখ ৬৪ হাজার ২ শ’ ৬৮ কোটি টাকা)। আজারবাইজানের বিদেশী সংস্থাগুলোর প্রায় ২১.৬% তুর্কি মূলধনের মাধ্যমে পরিচালিত হয়ে থাকে। সূত্র: ডেইলি সাবাহ।

একটি মন্তব্য লিখুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে