নতুন মার্কিন প্রশাসন নিয়ে চিন্তিত ইহুদী ইসরাইল!

0

আওয়ার টাইমস্ নিউজ।
বৃহস্পতিবার ফিলিস্তিনি বার্তা সংস্থা শেহাব জানিয়েছে, ইসরাইলি একটি ওয়েবসাইটের খবরে বলা হয়েছে, আমেরিকার নিরাপত্তা বিষয়ক সেকেন্ডারি কমিটির সভাপতি হিসাবে কংগ্রেসওম্যান বেটি ম্যাক্কলামকে মনোনয় দেয়ার পর, বাইডেন প্রশাসনের নতুন নিয়োগগুলো নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ইসরাইল। এ মনোনয়ন নিয়ে ইসরাইলিদের মাঝে অনেক উদ্বেগ রয়েছে। কেননা, ম্যাক্কলামের নীতিমালা ইসারাইলের ফিলিস্তিনি ভূমি দখল এবং বারবার মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিরোধিতা করে। তিনি ২০১৪ সালে অধিকৃত পশ্চিম তীরের শহর রামাল্লায় দুজন ফিলিস্তিনীকে হত্যা করা হলে, ইসরাইলকে সাহায্য দেয়া নিষিদ্ধের আহবান জানিয়েছিলেন। ২০১৫ সালে তিনি ইউনাইটেড নেশন্স রিলিফ এন্ড ওয়ার্ক এজেন্সি (ইউএনআরডব্লিউএ)-তে সহায়তা কমানোর মার্কিন সিদ্ধান্তেও আপত্তি জানিয়েছিলেন। ২০১৫ সালের জুনে তিনি ফিলিস্তিনী শিশুদের লাগাতারভাবে আটকে রাখা এবং নির্যাতনের কারণে ইসরাইলের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের আহবান জানিয়ে তৎকালীন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরিকে পাঠানো একটি চিঠিতে সই করেন।

ম্যাক্কলাম ২০১৬ সালে ইসরাইলের মানবাধিকার লঙ্ঘনের তদন্তের পাশাপাশি দেশটির জাতিবিদ্বেষী জাতীয়তাবাদ আইনের বিষয়ে তদন্তেরও আহবান জানিয়ে একটি আবেদনেও সই করেন যে, আইনের দ্বারা কেবলমাত্র ইহুদিদেরই স্বাধীনভাবে সিদ্ধান্ত নেয়ার অধিকার দেয়া হয়েছে। দেশটির আরব সংখ্যালঘু সদস্যরা এটাকে বর্ণবাদী ও সাম্প্রদায়িক বলে অভিহিত করেন।

আমেরিকার বেসামরিক নিরাপত্তা, গণতন্ত্র ও মানবাধিকার বিষয়ক আন্ডার সেক্রেটারি হিসাবে মানবাধিকার কর্মী উজরা জেয়াকে মনোনীত করা নিয়েও উদ্বিগ্ন ইসরাইল। তিনি ফিলিস্তিনে ইসরাইলি দখলদারিত্বের এবং মার্কিন নীতি প্রণয়নে ক্ষেত্রে ইহুদি দালালদের আধিপত্য বিস্তারের বিরোধী হিসেবে সুপরিচিত। ইসরাইলের প্রতি আমেরিকার একনিষ্ঠ সমর্থন নিশ্চিতের জন্যে কংগ্রেসম্যানদের ঘুষ বা চাঁদা দিয়ে মার্কিন নীতিমালা দূষিত করার ক্ষেত্রে ইহুদি দালালদের ভূমিকা সম্পর্কে একটি গবেষণাপত্রও তৈরি করেছিলেন জেয়া। সূত্র: শিহাব ও মিডল ইস্ট মনিটর।

একটি মন্তব্য লিখুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে