পশ্চিমা দেশগুলো পুনরায় ক্রসেড শুরু করতে চায়: এরদোয়ান

0

Our Times News

গতকাল (বুধবার) তুরস্কের সংসদে দেশটির প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোয়ান বলেছেন: পশ্চিমা দেশগুলো ইসলামকে আক্রমণ করে পুনরায় ধর্মযুদ্ধ শুরু করতে চায়। দুর্ভাগ্যবশত আমরা এমন এক প্রতিকূল সময়ে রয়েছি – যখন ইসলাম, মুসলিম ও মহানবীকে (সল্লাল্লাহুতা’লা ’আলাইহি ওয়া সাল্লাম) অবমাননা করা হয়। এটা ক্যান্সারের মতো ছড়িয়েছে; বিশেষ করে ইউরোপীয় নেতাদের ভেতরে। কথিত ব্যঙ্গচিত্রের মাধ্যমে যারা আমাদের নবীকে ব্যঙ্গ করার দুঃসাহস করে – এমন কলঙ্কিত লোকদের সম্পর্কে আমার কিছু বলার প্রয়োজন নেই। আমরা (মুসলমানরা) এমন একটি জাতি যারা কেবল আমাদের নিজের ধর্মকেই নয়, বরং অন্যান্য ধর্মের মূল্যবোধকেও সম্মান করি। আমাদের এ মূল্যবোধকেই এখন টার্গেট করা হচ্ছে। তারা যাই করুক না কেন; আমরা আমাদের ন্যায়সঙ্গত অবস্থান ত্যাগ করবো না। আমি বিচক্ষণ ইউরোপীয়দের আহ্বান করছি – নিজেদের ও তাদের সন্তানদের উজ্জ্বল ভবিষ্যতের জন্যে এখনই বিপজ্জনক প্রবণতার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে।

এদিকে, প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানের আইনজীবী হুসেই আদিন জানিয়েছেন, তাঁর বিরুদ্ধে ঘৃণ্য কার্টুনের অভিযোগ এনে ফরাসী সাপ্তাহিক ম্যাগাজিন শার্লি হেবদোর বিরুদ্ধে মামলা করেছেন এরদোগান। ম্যাগাজিন কর্তৃপক্ষ ও কার্টুনিস্টের বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করা হয়েছে।

ইয়েনি শাফাক জানিয়েছে, আঙ্কারার প্রসিকিউটরের কাছে এ অভিযোগটি জমা পড়েছে।

তুর্কি যোগাযোগ অধিদফতর বলছে, আমাদের জনগণের সন্দেহ নেই যে, প্রশ্নবিদ্ধ ব্যাঙ্গচিত্রের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় সব আইনগত ও কূটনৈতিক পদক্ষেপ নেয়া হবে।

ওদিকে, মহানবীর (’আলাইহিস সলাতু ওয়াস সালাম) জন্মদিনকে উপলক্ষ করে মিশরের সামরিক-জান্তা আব্দেল-ফাত্তাহ আস-সিসি বলেছেন: মত প্রকাশের স্বাধীনতা বন্ধ হওয়া উচিত। কেননা, ফ্রান্সে নবী মুহাম্মাদের (সল্লাল্লাহুতা’লা ’আলাইহি ওয়া সাল্লাম) ইমেজ প্রদর্শনকে মুসলমানরা ধর্ম অবমাননা হিসেবে দেখছে এবং দেড় বিলিয়নেরও বেশি লোক এতে আপত্তি জানিয়েছে। আমাদেরও অধিকার আছে। আমাদের অনুভূতিতে আঘাত না দেয়া এবং আমাদের মূল্যবোধ ক্ষতিগ্রস্ত হতে না দেয়ার অধিকার আমাদের রয়েছে। আমি ধর্ম, ধর্মীয় নিশানা বা প্রতীক রক্ষার নামে কারো কাছ থেকে যে কোনো রকম সহিংসতা বা সন্ত্রাসবাদ দৃঢ়ভাবে প্রত্যাখ্যান করি।

মালয়শিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রী হাশিমুদ্দীন হুসাঈন এক বিবৃতিতে বলেছেন: আমরা সম্প্রতি বিশ্বে ঘটে যাওয়া ইসলাম ধর্মের জন্যে অবমাননাকর যে কোনো রকমের উত্তেজনামূলক বক্তব্য ও উস্কানিমূলক কর্মকাণ্ড এবং মহানবী হযরত মুহাম্মাদকে (সল্লাল্লাহুতা’লা ’আলাইহি ওয়া সাল্লাম) নিয়ে যে কোনো ব্যঙ্গচিত্র ও অবমাননাকর প্রকাশনার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। সূত্র: আল-জাজিরা।

একটি মন্তব্য লিখুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে