মন্দিরের রাস্তার জন্যে মসজিদের জমি দান!

0

Our Times News

মোদী সরকার যেখানে ভারতীয় মুসলমানদের উপরে একের পর এক অবিচার করে চলেছে – ভারতীয় মুসলমানরা সেখানে হিন্দুদের প্রতি বদান্যতার নজির রাখছে। কেরালার মালাপুপুরমের মুথুভাল্লুর পঞ্চায়েত কমিটির মন্দিরের রাস্তার জন্যে নির্দ্বিধায় জমি দান করেছে মসজিদ কমিটি!

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, কেরেলার কোনদোত্তি এলাকার কাছে মুথুভাল্লুর পঞ্চায়েতের অধীনস্থ একটি পাহাড়ি এলাকায় দেবী ভগবতীর মন্দির রয়েছে। তার পাশে রয়েছে কোচিক্কোডান মোচিথাদাম নামে একটি কলোনীও। গত ৪০ বছর ধরে সেখানে কোনো রাস্তা না থাকায় মন্দির-দর্শনার্থীদের পাশাপাশি ঐ গ্রামবাসীরও অনেক সমস্যা পোহাতে হতো। কিছুদিন আগে মন্দির কর্তৃপক্ষ ও মোচিথাদাম কলোনীর বাসিন্দারা স্থানীয় পারাথাক্কাড মসজিদ কমিটির কাছে মন্দিরে যাওয়ার রাস্তা তৈরির জন্যে কিছুটা জমি চান। তাদের আবেদনের প্রেক্ষিতে নিজেদের মাঝে আলোচনা করে জমি দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় মসজিদ কমিটি।! শুধু তাই নয়, পঞ্চায়েতের কাছ থেকে রাস্তাটি কংক্রিটের করে দেয়ার প্রতিশ্রুতিও আদায় করে।

মন্দিরে যেতে ১১৫ মিটার রাস্তা হস্তান্তর করা হয়েছে। সম্প্রতি পঞ্চায়েতের তরফে ঐ রাস্তাটি তৈরি করে জনসাধারণের ব্যবহারে জন্যে খুলেও দেয়া হয়েছে। ফলে, ভগবতী মন্দিরের ভক্ত ও স্থানীয় বাসিন্দাদের মাঝে উৎসবের পরিবেশ তৈরি হয়েছে।

পারাথাক্কাড জুমা মসজিদ কমিটির সম্পাদক শিহাব এদাক্কাদ বলেন: যখন তারা আমাদের কাছে আসে, তখন আমরা সত্যিই তাদেরকে সাহায্য করতে চেয়েছি। কলোনীর লোকদের একটি রাস্তা দরকার ছিলো। তবে জমিটি মসজিদের মালিকানাধীন থাকায় কিছু বিধি রয়েছে যে, কিছু জমি অন্যকে দেয়া যায় না। কাজেই, এটা আমাদেরকে যাচাই করতে হলো। পরে, আমরা সিদ্ধান্ত নিই – জমি হস্তান্তর করা যেতে পারে। পঞ্চায়েতের তরফে রাস্তাটি তৈরি করে মানুষের ব্যবহারের জন্যে হস্তান্তর করা হয়েছে। ফলে, বিভিন্ন জায়গা থেকে আসা লোকজনের মন্দিরে যেতে আর কোনো অসুবিধা হবে না। এখানে সকল ধর্মের লোকেরা বাস করে। আমরা তাদের সবাইকে শ্রদ্ধা করি।

পঞ্চায়েতের সভাপতি আহমদ সগীর জানিয়েছেন, ঐ জমিতে মন্দির কমিটি মন্দিরে পৌঁছতে সিঁড়ি তৈরি করতে চায়। এজন্যে মসজিদ কমিটি অর্থ দান করতেও রাজী।

মন্দিরের পুরোহিত বাবু চেলোথ উনিয়াথন বলেন: মন্দিরটি ৪৫ বছরেরও বেশি পুরানো। কলোনী ও মন্দিরে পৌঁছতে মূল রাস্তা থেকে পাহাড়ে উঠতে সমস্যা হচ্ছিলো। আমরা যখন তাদের কাছে গেলাম, তখন মাহাল্লু কমিটি (মসজিদ ব্যবস্থাপনা পরিষদ) খুব সহযোগিতা করেছে। কাছাকাছি জমিটির মালিকানাধীন আরো দুটি পরিবার মসজিদের জমিটি মূল সড়কের সাথে সংযুক্ত করতে প্রায় ৪ ফুট জমিও দিয়েছে। মসজিদ কমিটি প্রায় ১০০ মিটারের বেশি রাস্তা মন্দিরের প্রয়োজনে দান করেছে। আমরা সবার প্রতি কৃতজ্ঞ। কলোনীবাসীর জন্যেও এটি আশীর্বাদ হিসাবে এসেছে। নইলে, তারা কোনো রাস্তার জন্যে জমি কিনতে পারতো না। সূত্র: দ্য নিউজ মিনিট ও আনন্দবাজার পত্রিকা।

একটি মন্তব্য লিখুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে