মুসলিমদের যে দুই ভূখন্ড দখল করে রেখেছে খৃষ্টানরা!

0

আওয়ার টাইমস্ নিউজ।
উত্তর আফ্রিকায় স্পেনের দুই সার্বভৌম ভূখন্ড হলো সুটা ও মেলিল্লা। কিন্তু সেবতাহ ও মেলাইলাহ হলো মূলত মরক্কোর জায়গা যা স্প্যানিশ খৃষ্টানরা কয়েকশ বছর ধরে দখল করে রেখেছে।

৮ম শতাব্দীতে ইউরোপের ইবেরিয়ান উপদ্বীপ, অর্থাৎ স্পেন ও পর্তুগাল শাসন করতেন মুসলিম মূর সম্রাটরা–যা শুরু হয়েছিল সুটা থেকে। ইউরোপে মুসলমানদের সেই সালতানাত টিকে ছিলো ৮০০ বছর! পরে খৃষ্টানরা ইউরোপ থেকে মূর মুসলিমদের তাড়িয়ে দিয়ে সুটা ও মেলিল্লা দখল করে নেয়। মেলিল্লা দখলের প্রায় দুশ বছর পর, সপ্তদশ শতাব্দীতে সুটাও দখল করে নেয় স্পেন।

১৯৫৬ সালে ফ্রান্সের কাছ থেকে মরক্কো স্বাধীনতা পেলেও সুটা ও মেলিল্লার নিয়ন্ত্রণ ছাড়েনি স্পেন। মরক্কোর পাশাপাশি আরব জাহানের অন্যান্য দেশের শত চেষ্টাও কাজে আসেনি। মরক্কোর রাষ্ট্রবিজ্ঞানী সামীর বেনিস বলেন: ফ্রান্সের কাছে থেকে স্বাধীনতা পাওয়ার পর, মরক্কো ভেবেছিলা সুটা ও মেলিল্লার মালিকানার বিষয়টি আপোষেই সুরাহা হয়ে যাবে। কিন্তু স্পেন কখনই নমনীয় হয়নি। মুসলমানদের কাছে সুটা ও মেলিল্লা ইউরোপীয় খৃষ্টান শক্তির কাছে তাদের পরাজয় ও অপমানের স্মৃতি-চিহ্ন।

মরক্কোর একজন ঐতিহাসিক লিখেছেন: পুরনো সেই ক্ষত এখনো সারেনি এবং তা সারবেও না-যতোদিন না ঐ দু ভূখন্ড আবারো মুসলমানদের নিয়ন্ত্রণে আসে। মুলত সুটা ও মেলিল্লা মুসলমানদেরই জায়গা-তা সে যতোদিন ধরেই অন্যের দখলে থাকুক না কেন। তাইতো উইকিপিডিয়ায়ও এ দু শহরের পরিচিতি লেখা হয়েছে হয়েছে-স্পেন নিয়ন্ত্রিত মরক্কোর শহর। শহর দুটি আবার মুসলিমদের হাতে ফিরিয়ে আনতে নানা রকম চেষ্টা করেছে মরোক্কো। তবে স্পেন কখনই এ দু শহরের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে কোনো রকম আপোষ-মীমাংসায় রাজী হয়নি। তাদের দাবি-এ দু শহর কয়েকশ বছরেরও বেশি সময় ধরে তাদের নিয়ন্ত্রণে এবং এগুলো স্পেন রাষ্ট্রের অবিচ্ছেদ্য অংশ। কিন্তু রাজনৈতিক ও প্রশাসনিক বিবেচনায় ইতিহাসের সিংহভাগ সময়ে এ দু শহর মুসলিমদেরই ভূখণ্ড ছিলো। সূত্র: বিবিসি।

একটি মন্তব্য লিখুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে