২০২০ সালে সড়কে প্রাণ হারিয়েছে ৪.হাজার ৯৬৯ জন মানুষ!

0

আওয়ার টাইমস্ নিউজ।
নিজস্ব প্রতিবেদক: ২০২০ সালে দেশে সড়ক দুর্ঘটনায় ৪.হাজার ৯৬৯ জন মানুষ নিহত হয়েছেন, এর পাশাপাশি আহত হয়েছেন ৫ হাজার ৮৫ জন। এবং এ সময়ের মধ্যে সর্বমোট সড়ক দুর্ঘটনা সংঘটিত হয়েছে ৪.হাজার ৯২টি।

আজ বুধবার (৬ জানুয়ারি) জাতীয় প্রেসক্লাবে সড়ক দুর্ঘটনার এ পরিসংখ্যান উপস্থাপন করেন নিরাপদ সড়ক চাইয়ের (নিসচা) প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশের জনপ্রিয় অভিনেতা ইলিয়াস কাঞ্চন।

এ উপস্থাপনায় তিনি আরো উল্লেখ করেন, ২০২০ সালে দেশের রেলপথের দুর্ঘটনায় ১২৯ জন নিহত হয়েছে এবং আহত হয়েছে ৩১ জন। অন্যদিকে নৌপথের দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন ২১২ জন, এবং আহত ও নিখোঁজ হয়েছেন ১০০ জন।

এদিকে ইলিয়াস কাঞ্চন তার লিখিত বক্তব্যে বলেছেন- পুরো বাংলাদেশের মধ্যে সবচেয়ে বেশি সড়ক দুর্ঘটনা ঘটছে ঢাকা, চট্টগ্রাম ও ময়মনসিংহ রোডে। আর অন্যদিকে পার্বত্য চট্টগ্রাম (রাঙামাটি, খাগড়াছড়ি ও বান্দরবান) এলাকা গুলোতে কম দুর্ঘটনা ঘটছে। এর কারণ হিসেবে তিনি দাবি করে, এ সব এলাকাগুলোতে গাড়ির চালকগন তুলনামূলক কম গতিতে যথেষ্ট নিয়ন্ত্রণে রেখে যানবাহন চালানোর ফলেই কম ‌ দুর্ঘটনা ঘটছে। তিনি আরো বলেন, আমাদের দেশে সড়ক দুর্ঘটনার পেছনের মূল কারণ হচ্ছে সড়কের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা ও মনিটরিংয়ের অনেক অভাব। যেমন, টাস্কফোর্স কর্তৃক প্রদত্ত ১১১টি সুপারিশনামা পরিপূর্ণভাবে বাস্তবায়ন না করা। গাড়ির চালকদের মধ্যে প্রতিযোগিতা ও বেপরোয়া গাড়ি চালানোর প্রবণতা, দৈনিক চুক্তিভিত্তিক গাড়ি চালানো, লাইসেন্স ছাড়া চালক নিয়োগ প্রধান করা, পথচারীদের মধ্যে রোডে চলা চলের সচেতনতার অনেক অভাব, চালকদের মধ্যে ট্রাফিক আইন ভঙ্গ করে ওভারটেকিং করার প্রবণতা, কোনরকম বিরতি ছাড়াই দীর্ঘসময় ধরে গাড়ি চালানো, ফিটনেসবিহীন গাড়ি না চালানো আইনের পরিপূর্ণ প্রয়োগ না থাকা, সড়ক ও মহাসড়কে মোটরসাইকেল ও তিন চাকার গাড়ি বৃদ্ধি, মহাসড়কের নির্মাণের কাজের ত্রুটি, একই রাস্তায় বৈধ ও অবৈধ এবং দ্রুত ও শ্লথ যানবাহন চলাচল, এবং সড়ক-মহাসড়কের পাশে হাটবাজার ও দোকানপাট থাকা। সবশেষে ইলিয়াস কাঞ্চন বলেছেন, বাংলাদেশে সড়ক আইনের সঠিক ও পরিপূর্ণ বাস্তবায়ন হলে দেশের সড়ক নিরাপদ হয়ে উঠবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

একটি মন্তব্য লিখুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে