ইসলামে প্রথম স্ত্রীকে না জানিয়ে দ্বিতীয় বিবাহ করা জায়েজ আছে কি?

0

আওয়ার টাইমস নিউজ।
ইসলামীক বিষয়ে পাঠক পাঠিকাদের জিজ্ঞাসা।
বিষয়ঃ প্রথম স্ত্রীকে না জানিয়ে দ্বিতীয় বিবাহ করা প্রসঙ্গে।
প্রশ্নঃ সম্মানিত মুফতি সাহেব হুজুর, প্রথম স্ত্রীকে না জানিয়ে দ্বিতীয় বিয়ে করা জায়েজ আছে কী? দলীলের আলোকে সমাধান দিয়ে বাধিত করবেন। কাউছার আহমদ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে।

উত্তরঃ
ইসলামী শরীয়ত অনুযায়ী একাধিক স্ত্রীর যাবতীয় হক আদায় করতে পারলে এবং ইনসাফ ও সমতা রক্ষা করতে সক্ষম হলে প্রয়োযনের স্বার্থে প্রথম স্ত্রীর অনুমতি ছাড়াই স্বামী দ্বিতীয় বিয়ে করতে পারবে। কিন্তু প্রথম স্ত্রীর সাথে পরামর্শ করে দ্বিতীয় বিয়ে করা ভালো।
তবে বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী প্রথম স্ত্রীর অনুমতি নিতে হবে।

আল্লাহ তায়ালা বলেন,
 فَانكِحُوا مَا طَابَ لَكُم مِّنَ النِّسَاءِ مَثْنَىٰ وَثُلَاثَ وَرُبَاعَ ۖ فَإِنْ خِفْتُمْ أَلَّا تَعْدِلُوا فَوَاحِدَةً
‘তোমরা বিবাহ কর নারীদের মধ্যে যাকে তোমাদের ভালো লাগে—দুই, তিন অথবা চার। আর যদি আশঙ্কা করো যে সুবিচার করতে পারবে না, তাহলে এক বিয়ে পর্যন্তই সীমাবদ্ধ থাক’।(সুরা : নিসা, আয়াত : ৩)
দ্বিতীয় বিয়ের ক্ষেত্রে আল্লাহ তায়ালা প্রথম স্ত্রীর অনুমতি নেওয়ার শর্ত আরোপ করেননি। তবে সকলের মাঝে ইনসাফ করার শর্ত জুড়ে দিয়েছেন।

وَعَنْ أَبِىْ هُرَيْرَةَ عَنِ النَّبِىِّ ﷺ قَالَ : «إِذَا كَانَتْ عِنْدَ الرَّجُلِ امْرَأَتَانِ فَلَمْ يَعْدِلْ بَيْنَهُمَا جَاءَ يَوْمَ الْقِيَامَةِ وَشِقُّه سَاقِطٌ»

আবূ হুরায়রাহ্ (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ যদি কোনো পুরুষের দু’জন সহধর্মিণী থাকে আর সে তাদের মধ্যে যদি ন্যায়বিচার না করে, তবে সে কিয়ামতের দিন একপাশ ভঙ্গ (অঙ্গহীন) অবস্থায় উঠবে। (জামে তিরমিজি হাদিস নং ১১৪২)

ফিকহে হানাফীর প্রসিদ্ধ কিতাব ‘হেদায়াতে’ রয়েছে যে,
وللحر أن يتزوج أربعا من الحرائر والإماء
স্বাধীন পুরুষ চারজন স্বাধীন নারী কিংবা দাসীকে বিবাহ করতে পারে। হেদায়া- (২/ ৩১১)

উত্তর প্রদান করেছেন।
মুফতি আব্দুল্লাহ ইদরীস – জামিয়া দারুল উলুম মুহিউস সুন্নাহ আখাউড়া, ব্রাহ্মণবাড়িয়া।

একটি মন্তব্য লিখুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে