নতুন বাড়ি নির্মাণের সময় রক্ত প্রবাহিত করার কোনো নিয়ম আছে কী?

0

আওয়ার টাইমস নিউজ

ইসলামীক বিষয়ে প্রিয় পাঠক পাঠিকাদের জিজ্ঞাসা।

সম্মানিত মুফতী সাহেব হুজুর!
আমাদের সমাজের কিছু মানুষ নতুন ঘর – বাড়ি নির্মাণের সময় ভিত্তি প্রস্থর উপলক্ষে রক্ত প্রবাহিত করে। শরীয়তে এর কোনো ভিত্তি আছে কী? জানিয়ে বাধিত করবেন। লাদেন মাহমুদ ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে।

উত্তরঃ
নতুন ঘর – বাড়ি নির্মাণের সময় ভিত্তি প্রস্থর উপলক্ষে রক্ত প্রবাহিত করা কবীরা গোনাহ। এটা হিন্দু ও মূর্তিপূজকদের আকিদাহ- বিশ্বাস। মুসলমানদের জন্য এহেন গর্হিত কাজ পরিত্যাগ আবশ্যক।

প্রামাণ্য গ্রন্থাবলীঃ
১.
وَمَن يَبْتَغِ غَيْرَ الْإِسْلَامِ دِينًا فَلَن يُقْبَلَ مِنْهُ وَهُوَ فِي الْآخِرَةِ مِنَ الْخَاسِرِينَ
যে ইসলাম ভিন্ন কোন ধর্ম তালাশ করে তা তার নিকট থেকে গ্রহণ করা হবে না এবং সে আখেরাতে ক্ষতিগ্রস্তদের অন্তর্ভুক্ত হবে।
সুরা আল ইমরান- আয়াত ৮৫

২.
وَلَا تَرْكَنُوا إِلَى الَّذِينَ ظَلَمُوا فَتَمَسَّكُمُ النَّارُ
অর্থাৎ তোমরা জালিমদের প্রতি ঝুকে যেওনা।(ঝুকলে) জাহান্নামের আগুন তোমাদেরকে স্পর্শ করবে। (সূরা হুদ- আয়াত নং ১১৩)
উক্ত আয়াতের ব্যাখ্যায় হযরত আবুল আলিয়া রহিমাহুল্লাহ বলেন,
.
وقال أبو العالية : لا ترضوا أعمالهم .
অর্থাৎ তোমরা তাদের কাজকর্মে সম্মতি প্রকাশ করোনা। (তাফসিরে ইবনে কাসীর ৪/২০৩)
উক্ত আয়াতের ব্যাখ্যায় ইমাম কুরতুবী রহিমাহুল্লাহ বলেন,
تحرقكم بمخالطتهم ومصاحبتهم وممالاتهم على إعراضهم وموافقتهم في أمورهم.
তাদের সাথে মেলা- মেশা, উঠা বসা, ধর্মের প্রতি বিমুখী হওয়ার পরেও তাদের সাথে আন্তরিকতা ও তাদের কাজকর্মের অনুসরণ তোমাদেরকে জাহান্নামের আগুন জালিয়ে দিবে। (কুরতুবী- ৫/ ১০৮)
৩.
عَنِ ابْنِ عُمَرَ، قَالَ قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صلى الله عليه وسلم ‏ “‏ مَنْ تَشَبَّهَ بِقَوْمٍ فَهُوَ مِنْهُمْ ‏”‏ ‏.‏
ইবনে উমার (রাঃ) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেনঃ রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ যে ব্যক্তি কোন কাওমের (সম্প্রদায়ের) অনুসরণ-অনুকরন করবে, সে তাদের দলভুক্ত হবে।
(সুনানে আবু দাউদ হাদিস নং ৩৯৮৯, জামে তিরমিজি হাদিস নং ২৬৯৫)

উক্ত হাদিসের ব্যাখ্যায় হযরত তিবী রহিমাহুল্লাহ বলেন,
هذا عام في الخلق والخلق والشعار
অর্থাৎ হাদিসটি স্বভাব- রীতি, পোশাক ও নিদর্শনের ক্ষেত্রে ব্যাপক। অর্থাৎ যে কেউ কথা ও কাজে,পোশাকে বা যে-কোন ভাবে বিজাতীদের অনুসরণ করে, সে তাদের অন্তর্ভুক্ত হয়ে যাবে।
মিরকাতুল মাফাতীহ – ৮.২২২

৪.
من رضي عمل قوم كان شريكا في عمله
অর্থাৎ যে ব্যক্তি কোন সম্প্রদায়ের কাজে সন্তুষ্ট, সে তাদের কাজে অংশীদার। (কানজুল উম্মাল – হাদিস নং ৩৪৭৩)

৫.
مالك بن دينار قال : أوحى الله إلى نبي من الأنبياء أن قل لقومك : لا تدخلوا مداخل أعدائي ، ولا تطعموا مطاعم أعدائي ، ولا تلبسوا ملابس أعدائي ، ولا تركبوا مراكب أعدائي ، فتكونوا أعدائي كما هم أعدائي
হযরত মালেক বিন দীনার রহিমাহুল্লাহ বলেন,
রব্বুল আলামীন তাঁর কোন একজন নবীর নিকট ওহি পাঠালেন যে,আপনি নিজ কওমের লোকদেরকে বলুন, তোমরা আমার শত্রুদের প্রবেশপথ দিয়ে প্রবেশ করোনা,তাদের খাবার খেওনা,তাদের পোশাক পরিধান করোনা,তাদের বাহন ব্যবহার করোনা। এসব করলে তোমরা তাদের মত আমার শত্রু হয়ে যাবে।
আয যাওয়াযের আন ইকতিরাফিল কাবায়ের – ২৫

৬. মুহাক্কাক ওয়া মুদাল্লাল জাদীদ মাসাইল -১/৯৪

উত্তর প্রদান করেছেন।
মুফতী আব্দুল্লাহ ইদরীস, সহকারী শিক্ষা পরিচালক, জামিয়া দারুল উলুম মুহিউস সুন্নাহ আখাউড়া, ব্রাহ্মণবাড়িয়া।

একটি মন্তব্য লিখুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে