স্যামসন-তেওয়াটিয়া নৈপুণ্যে ইতিহাস গড়া জয় রাজস্থানের।

0

স্টাফ রিপোর্টার: আমিনুল ইসলাম।

ক্রিকেট নামক রাজত্বে কে কখন নেতৃত্ব দেয় তা বলা বাহুল্য। গতকাল তারই এক জ্বলন্ত প্রমান পেয়েছে হাজারো ক্রিকেট প্রেমিরা।
হ্যাঁ পঞ্জাব বনাম রাজস্থানের কথা বলছি। টসে জিতে প্রথমে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় রাজস্থান।

বেশ ফুরফুরে মেজাজে খেলেছেন লুকেশ রাহুল আর মায়াংক আগারওয়াল। ওপেনিং জুটিতে ইতিহাস গড়ে দলকে এনে দিয়েছেন ১৮৩ রানের পাহাড়।
আগারওয়াল একাই খেলেন এক ঝড়ো ইংনিস ৫০ বলে ১০ চার আর ৭ ছক্কার সাহায্যে ১০৬ রান করে সাজঘরে ফিরেন এই দানবীয় ব্যাটসম্যান।

লুকেশ রাহুল খেলেছে ৫৪ বলে ৬৯ রানের ইংনিস। ফলে ২ উইকেট হারিয়ে ২২৩ রানে থামে পাঞ্জাবের প্রথম ইংনিস।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে জয়ের পথেই হেটেছেন স্মিথ- স্যামসন রা। দলীয় ১৯ রানের মাথায় প্রথম উইকেটের পতন ঘটে রাজস্থান রয়েলসের। জস বাটলার ৪ রান করে প্যাভিলিয়নের পথে পাড়ি জমান।

তবে থেমে যান নি সহযোদ্ধারা, দলীয় ১০০ রানের মাথায় দ্বিতীয় উইকেটের পতন হয় রাজস্থানের এবার সাজঘরে ফিরেন রাজস্থান রয়্যালসের অধিনায়ক অস্ট্রেলিয়ান কিংবদন্তি স্টিভ স্মিথ।
তিনি খেলেন ২৭ বলে ৫০ রানের এক ঝড়ো ইংনিস।

নাটকের শুরুটা হয় তৃতীয় উইকেটে এসে, ১০০ রানে টপ অর্ডারের দুই ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে তখনো হতাশ হননি স্যামসন – তেওয়াটিয়া’রা।

সঞ্জু স্যামসন খেলেছেন পুরো ফায়ার হয়ে। ৪২ বলে ৭ ছক্কা ৪ চারের সাহায্যে তিনি খেলেন ৮৫ রানের এক গুরুত্বপূর্ণ ইংনিস। সাথে সঙ্গ দিয়েছেন রাহুল তেওয়াটিয়া।

অবশ্য জয়ের শেষ প্রান্তে এসে মূখ্য ভূমিকা পালন করেন রাহুল তেওয়াটিয়া ৭ টি ছক্কায় ৩১ বলে ৫৩ রানের অগ্নিঝড়া ইংনিস খেলে দলকে নিয়ে যান জয়ের দ্বারপ্রান্তে। অবশেষে মি.ফিনিশার হিসেবে জোফরা আর্চার ৩ বলে ১২ রান করে দলের জয় নিশ্চিত করেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর;

টসঃ রাজস্থান (ফিল্ডিং)

কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবঃ ২২৩/২(২০)

লুকেশ রাহুলঃ ৬৯(৫৪)
মায়াংক আগারওয়ালঃ ১০৬(৫০)
নিকোলাস পুরানঃ ২৫(৮)*

রাজপুতঃ ৪-৩৯-০-১
টম কাররানঃ ৪-৪৪-০-১

রাজস্থান রয়্যালসঃ ২২৬/৬(১৯.৩)
স্টিভ স্মিথঃ ৫০(২৭)
স্যামসনঃ ৮৫(৪২)
রাহুল তেওয়াটিয়াঃ ৫৩(৩১)

মোহাম্মদ শামীঃ ৪-৫৩-০-১
জেমস নিশামঃ ৪-৪০-০-১

ফলাফলঃ রাজস্থান রয়্যালস ৪ উইকেটে জয়ী।
ম্যাচসেরাঃ সঞ্জু স্যামসন।

একটি মন্তব্য লিখুন

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে